কিভাবে বাংলায় ভিডিও’র সাবটাইটেল লিখবেন?

অন্যান্য টিউটোরিয়াল

জ্ঞানস্তর: প্রাথমিক

ইংরেজি মুভি দেখতে বসেছি, কিন্তু তবু ইংরেজিটা বুঝতে পারছি না, কারণ হলিউডের মুভি দেখতে দেখতে অ্যামেরিকান ইংরেজিতে অভ্যস্ত হয়ে পড়ায়, চিফ ব্রিটিশ ইংরেজি সহজে বুঝতে পারছি না, মুভিটার নাম: Sherlock Homes। তাই খুব সহজে গুগল করলাম প্রয়োজনীয় সহায়তার জন্য, এবং কিছুক্ষণের মধ্যে ছোট্ট একটা ফাইল নামিয়ে ভিডিও প্লেয়ারেই চলচ্চিত্রের কথাগুলো নিচে লেখা অবস্থায় দেখতে পেলাম – একে চলচ্চিত্রবিদ্যায় কী বলা হয় জানি না, তবে আমরা সাধারণ মানুষ একে ‘সাবটাইটেল’ হিসেবে জানি।

চলচ্চিত্রে দেখা যাবে বাংলা সাবটাইটেল, তৈরি করবো নিজেই :)

চলচ্চিত্রে দেখা যাবে বাংলা সাবটাইটেল, তৈরি করবো নিজেই 🙂

সাবটাইটেল ফাইল পরিচিতি:

সাবটাইটেল ফাইলগুলোর এক্সটেনশন হলো SRT (*.srt)। ফাইলের নাম যা ইচ্ছা হতে পারে, ভিডিও প্লেয়ারে ভিডিওটি চালু করে এসআরটি ফাইলটি লোড করে দিলেই হয়, সময় বুঝে বুঝে সে ভিডিও চলার সাথে সাথে নিচে সাবটাইটেল দেখাতে থাকবে। এই ফাইলগুলোতে শুধু লেখা বা অক্ষর থাকে বলে এগুলোর আকার হয় যথেষ্ট কম, মাত্র কয়েক কিলোবাইট।

সাবটাইটেল ফাইলের কার্যপদ্ধতি:

দেখা যাক একটা সাবটাইটেল ফাইল কিভাবে কাজ করে, উদাহরণস্বরূপ ‘শার্লক হোম্‌স’ চলচ্চিত্রের এসআরটি ফাইলটাই ধরা যাক:

1

00:00:27,198 —> 00:00:29,189

[HOOVED PATTERING]

 

2

00:00:29,367 —> 00:00:31,597

[HORDED WHINNYING]

 

3

00:01:43,307 —> 00:01:44,774

HOLMES:

<i>Head cocked to the left…</i>

 

4

00:01:44,942 —> 00:01:46,739

<i>…partial deafness in ear.</i>

 

এখানে 1, 2, 3, … এগুলো হলো সাবটাইটেলের সংখ্যা। 00:00:27, 198 –> 00:00:29, 189 হলো ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড, মিলিসেকেন্ড থেকে ঘন্টা:মিনিট:সেকেন্ড, মিলিসেকেন্ড পর্যন্ত সময়কাল, এর দ্বারা বোঝায়, লেখাটি এই সময়ের ভিতরে পর্দায় দেখা যাবে, সময় শেষ হয়ে গেলেই তা অদৃশ্য হয়ে যাবে। আর এর পরে দিতে হয় প্রদর্শনযোগ্য লেখাটি, যেমন এখানে [HOOVED PATTERING] লেখাটি।

সাবটাইটেল-এ বিভিন্ন ফরম্যাটিং যুক্ত করার জন্য HTML-এর কয়েকটি বহুল পরিচিত ট্যাগ ব্যবহার করা যায় এসআরটি ফাইলে, যেমন: Bold ট্যাগ (<b>Text</b>), Italic ট্যাগ (<i>Text</i>), এবং Underline (<u>Text</u>)। লক্ষ করুন: এখানে 3 নম্বর সাবটাইটেলটি ইটালিক ট্যাগ দিয়ে লেখা, মানে মনিটরে এই লেখাটি বাঁকা করে দেখাবে।

এছাড়াও সাবটাইটেল লেখায়, সাহিত্যিক লেখনীর বিভিন্ন প্রতীকি বিষয় দেখানো যায়, যেমন: একটা শব্দ (sound) হচ্ছে, শব্দটা কোনো ব্যক্তির বক্তব্য নয়, তাই শব্দকে বোঝাতে তৃতীয় বন্ধনীর ভিতরে ইংরেজি বড় ছাদের হরফ দিয়ে লেখা হয় শব্দটার ধরণ, তখন দর্শক বুঝতে পারেন, এটা কিসের শব্দ। উদাহরণস্বরূপ: এখানে 1, 2-তে ‘ঘোড়া ডাকছে’ এবং ‘চাপা আওয়াজ’ বোঝাতে যথাক্রমে [HOOVED PATTERING] এবং [HORDED WHINNYING] লেখা হয়েছে তৃতীয় বন্ধনী দিয়ে। এছাড়া, কোনো কথায় জোর দেয়া (emphasis) বোঝাতে বাঁকা করে লেখা, যেমন: I insist, I did not do this. (আমি জোরেশোরে বলছি, আমি এটা করি নাই)। এছাড়া ‘কথাগুলো মনে মনে বলছে’ বোঝাতে বাঁকা করে লেখা। আবার কোনো কথা চিৎকার করে জোর গলায় বলা হচ্ছে বোঝাতে সবগুলো হরফ ইংরেজি বড় ছাদের অক্ষর দিয়ে লেখা হয়, যেমন: I say DO IT NOW. (আমি বলছি, [চিৎকার করে] এক্ষুণি করো)। এছাড়া এন্টার (Enter, Return) চেপে নিচের লাইনে চলে আসার মাধ্যমে লেখাকেও একাধিক লাইনে লেখা যায়।

সাবটাইটেল ফাইল তৈরি করার পদ্ধতি:

ইংরেজি সাবটাইটেল নিয়ে এতক্ষণ আলোচনা করার অর্থ হলো, সাবটাইটেলের ভিতরকার কলকব্জাগুলো বুঝিয়ে দেয়া। এবারে আমরা জানবো, কিভাবে সাবটাইটেল তৈরি করা যায়। খুব সহজেই, আপনার কম্পিউটারের Notepad দিয়েই আপনি সাবটাইটেল তৈরি করতে পারেন।

  • প্রথম ধাপ: প্রথমে একটা নোটপ্যাড খুলুন (উইন্ডোজ কম্পিউটারে Start > All Programs > Accessories > Notepad। অথবা Start > Run খুলে লিখুন notepad এবং OK করুন)।
  • দ্বিতীয় ধাপ: এবারে উপরে দেয়া ফরম্যাট অনুসরণ করে আপনার কাঙ্ক্ষিত ভিডিওটির লেখাগুলো, ভিডিও প্লেয়ারে সময়ের সাথে মিলিয়ে মিলিয়ে দেখে লিখে ফেলুন।
  • তৃতীয় ধাপ: লেখা শেষ হয়ে গেলে ফাইলটি সংরক্ষণ করতে File > Save (Ctrl + S) চাপুন। যেখানে সংরক্ষণ করতে চান, সেখানে গিয়ে File Name-এর স্থলে ফাইলের নাম লিখুন এবং .txt-এর বদলে লিখুন .srt। কারণ আমরা সাবটাইটেল হিসেবে ফাইলটি সংরক্ষণ করতে চাচ্ছি, আর সাবটাইটেল ফাইলের এক্সটেনশন হলো এসআরটি।

ব্যস, তৈরি হয়ে গেল আপনার ভিডিওটির সাবটাইটেল ফাইল, ইংরেজিতে। এবারে ভিডিওটি চালু করে প্লেয়ার থেকে সাবটাইটেল ফাইলটি লোড করলে আপনার বেঁধে দেয়া সময়ানুগ আপনার লেখা সাবটাইটেলগুলো ফরম্যাটিং অনুসারে দেখা যাবে।

কিন্তু আমাদের মনটা এখনও ভরেনি, আমরা চাই, আমাদের ইউনিকোড সর্মথন করে এরকম কম্পিউটারে বাংলা ভাষায় সাবটাইটেল দেখতে। অনলাইনে এখন অনেক চলচ্চিত্রেরই বাংলা সাবটাইটেল পাওয়া যায়, সেখান থেকে ফাইল নামিয়ে ব্যবহার করা যায় বিনামূল্যেই। তবে পরিমাণটা অনেক কম, তাছাড়া প্রয়োজনীয় অনেক ভিডিও কিংবা চলচ্চিত্রেরই সাবটাইটেল এখনও কেউ ছাড়েনি। তাই দরকার হতে পারে নিজের পছন্দের সাবটাইটেলগুলো বাংলায় নিজেরই তৈরি করে নেবার। এবারে সে পদ্ধতিটা দেখা যাক-

বাংলায় সাবটাইটেল লেখার পদ্ধতি:

‘How to write Bangla subtitle?’ লিখে গুগল করেও কাঙ্ক্ষিত জবাব সহজে পাইনি। তাই বাংলায় সাবটাইটেল লেখার বিষয়টা নিয়েই মূলত এই আয়োজন। যাহোক, সাবটাইটেল লেখার পদ্ধতি সম্পর্কে আমরা এখন জানি, এবং করতেও পারি। তাই সাবটাইটেল লেখার জন্য ‘প্রথম ধাপ’ অনুসরণ করতে কোনো বাধা নেই।

দ্বিতীয় ধাপ: এবারে দ্বিতীয় ধাপে সাবটাইটেলের সংখ্যা, সময়ের হিসাব এগুলো যথারীতি ইংরেজিতেই করতে হবে। শুধুমাত্র সাবটাইটেলগুলো বাংলায় লিখতে হবে। বাংলায় লেখার ক্ষেত্রে আসকিভিত্তিক লেখাও লিখতে পারেন, ইউনিকোডভিত্তিক লেখাও লিখতে পারেন। কিন্তু আমরা বোধহয় বাংলার ক্ষেত্রে আসকিভিত্তিক লেখাকে এখন বিদায় জানিয়েছি, এবং ইউনিকোডভিত্তিক আধুনিক এবং ভবিষ্যতের পদ্ধতিতে লেখাকে গ্রহণ করেছি সানন্দে। তাই ইউনিকোডভিত্তিক যেকোনো বাংলা-লেখার-সফ্‌টওয়্যার (যেমন: অভ্র কীবোর্ড, লেখনী ইত্যাদি) দিয়ে বাংলা লিখতে পারেন আপনি।

ধরা যাক, শার্লক হোম্‌সের ঐ সাবটাইটেলগুলো আমরা বাংলায় লিখলাম, তাহলে তা দেখা যাবে এভাবে-

1

00:00:27,198 —> 00:00:29,189

[ঘোড়া ডাকছে]

 

2

00:00:29,367 —> 00:00:31,597

[চাপা আওয়াজ]

 

3

00:01:43,307 —> 00:01:44,774

হোম্‌স:

<i>মাথাতে বাম দিকে থেকে আঘাত…</i>

4

00:01:44,942 —> 00:01:46,739

<i>…মানে, কানে সাময়িক বধিরতা।</i>

 

এভাবে বাংলায় লিখে ফেলার পরে আমাদের দ্বিতীয় ধাপ শেষ।

বাংলায় সাবটাইটেল লিখে নোটপ্যাড দিয়ে সংরক্ষণ করার পদ্ধতি

বাংলায় সাবটাইটেল লিখে নোটপ্যাড দিয়ে সংরক্ষণ করার পদ্ধতি

তৃতীয় ধাপ: এবারে তৃতীয় ধাপে গিয়ে নোটপ্যাডের File > Save (Ctrl + S) চাপার পর যে উইন্ডো আসবে, সেখানে আগের মতোই ফাইলনেম দিতে হবে এবং এক্সটেনশন হিসেবে .srt লিখতে হবে। শুধু, সংরক্ষণ করার আগে, নিচের তিন নম্বর ড্রপডাউনে ক্লিক করে ANSI’র বদলে Unicode পছন্দ করে দিতে হবে; ব্যস, কাজ শেষ। ইউনিকোড এজন্য পছন্দ করে দিতে হবে, কারণ বাংলা হরফগুলো আমরা ইউনিকোডে লিখেছি, এবং নোটপ্যাড ডিফল্টভাবে ASCII Plain Text লেখার জন্য তৈরি করা হয়েছে। আপনি ইউনিকোড পছন্দ না করে দিলে এতক্ষণ কষ্ট করে লেখা বাংলা লেখাগুলো নোটপ্যাড আসকিতে বদলে নিবে, এবং বাংলা লেখাগুলোর বদলে সেখানে কিছু প্রশ্নবোধক চিহ্ন (?????) বা আয়তাকৃতির বাক্স দেখা যেতে পারে। তখন সব পরিশ্রম বৃথা হয়ে যাবে।

এবারে মুভিটি চালু করে এসআরটি ফাইলটি লোড করে দিলেই বাংলায় সাবটাইটেল দেখা যাবে। এবং যদি মনে হয়, কোথাও, মুভির কথোপকথনের সাথে লেখা প্রদর্শনের গড়মিল হচ্ছে, তাহলে আবার ফাইলটা নোটপ্যাড দিয়ে খুলে প্রয়োজনীয় সম্পাদনা করে নেয়া যাবে।

মাইক্রোসফ্‌ট ওয়ার্ড দিয়ে বাংলা সাবটাইটেল লিখে সংরক্ষণ করার পদ্ধতি

মাইক্রোসফ্‌ট ওয়ার্ড দিয়ে বাংলা সাবটাইটেল লিখে সংরক্ষণ করার পদ্ধতি

নোটপ্যাড ছাড়াও ওয়ার্ডপ্যাড-এ লেখার কাজটি করা যায়। তবে ওয়ার্ডপ্যাডে বাংলা রেন্ডারিং-এ সমস্যা দেখা যেতে পারে। আপনি চাইলে মাইক্রোসফ্‌ট অফিস দিয়েও এধরণের লেখালেখি করতে পারেন, এতে বাংলা লেখাগুলো বড়-ছোট করে ভালো করে দেখে লিখতে পারবেন। তবে সেজন্য ফাইলটি সংরক্ষণ করার সময়ই যথারীতি .srt এক্সটেনশন দিয়ে, Save as type-এ Plain Text (*.txt) পছন্দ করে Save-এ ক্লিক করতে হবে। এবারে পরবর্তি উইন্ডোতে File Conversion-এ Other Encoding- রেডিও বাটনে এ ক্লিক করে তালিকা থেকে Unicode পছন্দ করে দিতে হবে। তারপর OK করে সংরক্ষণ সম্পন্ন করতে হবে।

এছাড়া বিভিন্ন কোড এডিটর যেমন: Microsoft FrontPage, Adobe Dreamweaver, NUSphere, NotePad++ ইত্যাদি দিয়েও কাজটি করা যাবে, তবে সংরক্ষণ করার সময় ইউনিকোডের ব্যাপারটি মাথায় রাখলেই হবে।

সাবটাইটেল লেখা/সম্পাদনার বিশেষ সফ্‌টওয়্যার:

এভাবে হাতের কাছে যা আছে, তা দিয়ে কাজ না করে আরো সহজসাধ্য সফ্‌টওয়্যার দিয়ে যারা কাজ করতে চান, তারা সাবটাইটেল লেখার বিভিন্ন সফ্‌টওয়্যার ব্যবহার করে থাকেন। এধরণের সফ্‌টওয়্যারগুলোর মধ্যে Subtitle Workshop, Subtitle Edit, AHD Subtitles Maker ইত্যাদি জনপ্রিয়। এছাড়াও আরো বহু সফ্‌টওয়্যার কিনে অথবা বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায়।

সীমাবদ্ধতা: সীমাবদ্ধতা তেমন একটা নেই। তবে ইউনিকোড সমর্থন করে না এরকম পুরোন অপারেটিং সিস্টেমে, বাংলা ফন্ট ঠিকমতো রেন্ডার করতে পারে না বলে, বাংলায় লেখা সাবটাইটেল ঠিকমতো দেখা যাবে না। তাছাড়া যে ভিডিও প্লেয়ারে ভিডিওটা দেখা হবে, সেটাতে সাবটাইটেল প্রদর্শনে ভাষা সংক্রান্ত, কিংবা ইউনিকোড রেন্ডারিং সংক্রান্ত কোনো সীমাবদ্ধতা থাকলে তার কারণেও বাংলা ঠিকমতো না দেখা যেতে পারে। তবে আশার কথা হলো আধুনিক অপারেটিং সিস্টেমগুলো আগাগোড়া ইউনিকোড বাংলা সমর্থন করে এবং ভিডিও প্লেয়ারগুলোর আপডেট ভার্ষনে ইউনিকোড প্রদর্শনে বাধা নেই। KM Player, GOM Player, VLC Player ইত্যাদিতে খুব সহজেই সাবটাইটেল লোড করে দেখা যায়।

 

এভাবে বাংলায় সাবটাইটেল ফাইল তৈরি করে আমরা আমাদের নিজেদের ভাষায় যেকোনো চলচ্চিত্র, ডকুমেন্টারি, সংবাদ প্রতিবেদন, সাধারণ ঘরোয়া ভিডিও ইত্যাদিকে আরো বেশি প্রাঞ্জল এবং গ্রহণযোগ্য করে তুলতে পারি বাঙালিদের কাছে। ইংরেজি বা ভিন-ভাষার দুর্বোধ্য কিন্তু শিক্ষণীয় ভিডিওগুলোকে বাংলা সাবটাইটেল যোগ করে বাঙালি তথা বাংলাদেশকে আরো একধাপ এগিয়ে দিতে পারি এখন অনায়াসে… কী, পারবো না?

-মঈনুল ইসলাম
গ্রাফিক্স ডিযাইনার ও ওয়েব ডেভলপার
wz.islam@gmail.com

5 comments

    1. ভালো প্রশ্ন। কখনও করে দেখা হয়নি।
      আমি আসলে বিদ্যমান একটা .srt ফাইলে সম্পাদনা করেছিলাম, তাই অনেক তথ্যই এখানে হয়তো বাস্তবে প্রয়োগযোগ্য নয়।

আপনার মন্তব্য জানান...