ন্যানোডিযাইন্‌স-এর সকল পাঠক ও শুভাকাঙ্ক্ষির প্রতি শুভেচ্ছা

শুভ নববর্ষ ১৪১৯ বঙ্গাব্দ!

জ্ঞান-স্তর: প্রাথমিক

ভার্ষন: ফটোশপ (যেকোনো ভার্ষন)

একজন ওয়েব গ্রাফিক্স ডিযাইনার হিসেবে আপনাকে জানতে হবে আপনার ডিযাইনটিকে আপনি কোন আকারে বানাবেনঅর্থাৎ ডিযাইন শুরু করার জন্য ফটোশপে যে ফাইলটা নিবেন, তার width-height কত নিবেনএজন্য মনে রাখতে হবে, কম্পিউটারে, মনিটরের রেযোল্যুশন বা দৃশ্যমান অংশের আকার আপনার ডিযাইনের এই অংশকে প্রভাবিত করবে (যাদের ভেক্টর গ্রাফিক্স সম্বন্ধে ধারণা আছে, তারা এই আলোচনাকে ভেক্টরের সাথে তুলনা করে গুলিয়ে ফেলবেন না যেন)

জেনে রাখতে হবে, আমরা ফটোশপে কোনো ছবি, লেখা, আঁকিবুকি ইত্যাদি যাবতীয় কিছুকে পিক্সেল (pixels, পিক্‌যেল) দিয়ে হিসাব করিপিক্সেল জিনিসটা হলো ধরা যাক একটা ছোট্ট আকৃতির বর্গক্ষেত্রআমরা হয় dot জিনিসটা বুঝি, একটা ফোঁটাতবে আমাদের কাছে মনে হয়, ডট জিনিসটা গোলাকৃতি কিছুকিন্তু পিক্সেল জিনিসটা গোলাকৃতি না, এটা বর্গাকৃতিরচিত্র ৩.০১-এ লক্ষ করবেন, বাম দিকে একটা ছোট্ট গোলাকৃতি বৃত্ত আছেওটাকে যখন বড় করে দেখছি আমরা ফটোশপে, তখন ওটা হয়ে যাচ্ছে অনেকগুলো বিভিন্ন [কাছাকাছি] রঙের বর্গক্ষেত্রের একটা সমন্বয়

চিত্র ৩.০১: পিক্সেল ধারণা

চিত্র ৩.০১: পিক্সেল ধারণা

এভাবে কম্পিউটারের মনিটরে যেকোনো ছবি, ভিডিও, লাইন —যা কিছু আমরা দেখি, তা আসলে হাজারে হাজারে পিক্সেলের সমন্বয়ে তৈরিএবারে আপনার মনিটরের দিকে তাকান,Continue reading

জ্ঞান-স্তর: মাধ্যমিক

ভার্ষন: ফটোশপ (যেকোনো ভার্ষন)

আজকে আমরা জানবো কিভাবে একটা সাদাকালো (Grayscale) ছবিকে রঙিন করা যায়। ফটোশপে আমাদেরকে সেই সাদাকালো ছবিটাকে খুলে নিতে হবে। এবারে দেখতে হবে, ছবিটা কোন কালার মোডে আছে: RGB, নাকি Grayscale। এটা দেখার সহজ পদ্ধতি হলো যে ছবিটা খোলা হলো, তার উপরের রিবনের লেখাটা পড়া। যদি ব্যাপারটা পরিষ্কার না হয়, তাহলে এই পদ্ধতি: Image > Mode, দেখুন টিক চিহ্ন কিসে দেয়া। যদি সেটা RGB-তে হয়, তাহলে আমাদের আর কিছুই করা লাগবে না। যদি সেটা Grayscale কিংবা অন্য কোনো অপশনে থাকে, তাহলে সেটাকে RGB-তে নিয়ে আসতে RGB’র উপর একটা ক্লিক করতে হবে। এটা করতে হবে এজন্য যে, RGB মোড দিয়ে রঙিন ছবিকে বোঝানো হয়, আর, আমরা যখন একটা ছবিকে রং করবো, তখন সেখানে বিভিন্ন রং যেন দেখা যায়।

যাহোক, এবারে লেয়ার প্যালেটে (লেয়ার প্যালেট না দেখা গেলে Window > Layers) একটা নতুন লেয়ার নিতে হবে সাদাকালো ছবিটার ব্যাকগ্রাউন্ড লেয়ারটার উপরে (Shift + Ctrl + N)। এবারে লেয়ার প্যালেটে এই নতুন লেয়ারটি সিলেক্ট থাকা অবস্থায় [ছবিতে দেখানোমতে] Normal mode থেকে লেয়ারটিকে Color মোডে নিয়ে যেতে হবে। আমরা এই লেয়ারটাতে এখন যা রং দিবো, সাদাকালো ছবিটা সেই রঙে রাঙতে থাকবে।

এবারের কাজটা সম্পূর্ণ নিজের কাছে: আমরা বাস্তবে যেভাবে একটা সাদাকালো ছবিতে তুলি দিয়ে রং মেখে রঙিন করি, এখানেও ব্যাপারটা হুবহু তাই। আমরা এবারে ফটোশপের ব্রাশ টুলটা নিব (B) এবং বিভিন্ন রং দিয়ে ছবির বিভিন্ন অংশ রঙিন করতে থাকবো। আমরা ঠিক করেছি সামনের চরিত্রটিকে রং করবো। এজন্য আমরা প্রথমে জ্যাকেটটা রং করছি, আর রং হিসেবে আমরা বেছে নিয়েছে হালকা আকাশি (#5986D1)। চেহারার রং হিসেবে নিয়েছি #F0C79F। আর ইনারের স্ট্রাইপ দুটোর জন্য নিয়েছি বেগুনি (#9373EF)। এরপর বিভিন্ন আকারের ব্রাশ নিয়ে মোটামুটিভাবে রং করেছি ছবিটাকে।

মোটামুটি রং করার পর আমাদের যেমন মনে হবে, ইশ্! ওখানটায় একটু বেরিয়ে গেছে, কিংবা ওহ! দারুণ রং করে ফেলেছি তো! দুটোরই সমাধান এখন করতে হবে।Continue reading

ন্যানোডিযাইনস এখন থেকে সব সময়ই আপনাদেরকে উপহার দিবে গ্রাফিক্স ডিযাইন এবং ওয়েব ডিযাইন বিষয়ক বিভিন্ন টিপ্‌স, টিউটোরিয়াল, সম্পূর্ণ বাংলায়। প্রথম টিউটোরিয়াল হিসেবে আমরা জানবো ফটোশপে কী করে এ্যাপল টেক্সট ইফেক্ট দেয়া যায়। আপনারা যারা এ্যাপলের ওয়েবসাইট ভিযিট করেছেন, তারা ম্যানুবারের এনগ্রেভ করা বা খোদাই করা লেখাগুলো দেখে থাকবেন। ঐ ইফেক্ট ফটোশপে কিভাবে দেয়া যায় তা-ই আমরা দেখবো:

জ্ঞান-স্তর: মাধ্যমিক

ভার্ষন: ফটোশপ (যেকোনো ভার্ষন)

ফটোশপে File > New (Ctrl + N) ক্লিক করে নতুন একটি ডকুমেন্ট নিন। আমাদের মোটামুটি আকারের একটা ডকুমেন্ট হলেই কাজ চলবে, তাই আমরা Width: 400, Height: 200, Resolution: 72 pixels/inch দিয়ে RGB মোডে একটা ডকুমেন্ট নিয়েছি। এবারে টুলস প্যালেট থেকে Rectangle Tool (U) সিলেক্ট করে [Shape layers মোডে] ডকুমেন্টের সাদা জমিনে একটা আয়তক্ষেত্র আঁকবো (ছবিতে যেমনটা দেখানো হয়েছে)। এবারে নতুন যে লেয়ারটি তৈরি হয়েছে তার ডানদিকে ডাবল ক্লিক করে এই লেয়ারের স্টাইল চালু করতে হবে (লেয়ার প্যালেটের নিচে বামদিকে f লেখাটিতে ক্লিক করেও ব্লেন্ডিং অপশন চালু করা যায়) (ফটোশপ সিএস-এ লেয়ারের বাম দিকের থাম্বনেইলে ক্লিক করতে হবে)।

 ব্লেন্ডিং মোডে Gradient Overlay সিলেক্ট করতে হবে। সেখানে Gradient-এর সাদা-কালো শেডটাতে একবার ক্লিক করতে হবে। এবারে Gradient Editor-এর লম্বা বারটির বাম দিকের নিচের তীরটাতে ক্লিক করে কালার কোড হিসেবে #949494 দিয়ে OK করুন, আর ডান দিকের তীরে ক্লিক করে কালার কোড দিন #d1d1d1, OK করে বেরিয়ে আসুন। ব্লেন্ডিং মোড চালু থাকা অবস্থায় এবারে Drop Shadow অপশনে ক্লিক করুন। সেখানে Blend mode: Multiply, রং থাকবে কালো (#000000), Opacity: 20%, Use Global Light-এর টিক চিহ্ন তুলে দিয়ে Angle দিন 90 degree। এবারে Distance: 1, Spread: 0, Size:0 দিয়ে OK করে ব্লেন্ডিং প্রয়োগ করুন। ব্যস, আপনার বার এখন প্রস্তুত। এবারে এই বারের উপর আমরা খোদাই করা লেখা লিখবো।Continue reading